Home / মিডিয়া নিউজ / এখানে আমি এনজিও কর্মী, ওখানে নৃত্যশিল্পী: পূর্ণিমা

এখানে আমি এনজিও কর্মী, ওখানে নৃত্যশিল্পী: পূর্ণিমা

পূর্ণিমা। লম্বা বিরতির পর একসঙ্গে দুটি ছবির জন্য চুক্তিবদ্ধ হলেন। একটি ‘জ্যাম’, অন্যটি

‘গাঙচিল’। নানা কারণে শুটিংয়ের আগেই দুটো ছবি বেশ আলোচিত হয়ে আছে।

কারণ, একটির সঙ্গে জড়িয়ে আছে অকাল প্রয়াত নায়ক মান্নার নাম আরেকটির সঙ্গে সরাসরি যুক্ত আছেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। আবার দুটো ছবিতেই পূর্ণিমা নির্মাতা হিসেবে পাচ্ছেন নঈম ইমতিয়াজ নেয়ামুলকে আর নায়ক হিসেবে থাকছেন ফেরদৌস! লম্বা বিরতি শেষে পূর্ণিমার এই ফেরার পুরোটাই বুঝি কাকতাল অথবা সম্মিলিত সুদূর পরিকল্পনার ফসল। ৬ আগস্ট সন্ধ্যায় রাজধানীর এক হোটেলে সাংবাদিকদের মুখোমুখি বসেন তিনজনই-ফেরদৌস, পূর্ণিমা ও নেয়ামুল। যদিও এই বসার কারণ, সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের উপন্যাস অবলম্বনে নির্মাণ প্রতীক্ষিত ‘গাঙচিল’ ছবির জন্য চুক্তিবদ্ধ হওয়া। চুক্তি স্বাক্ষর শেষে নির্মাতা নেয়ামুল জানান, ছবিটি নোয়াখালীর একটি চরের গল্প দিয়ে সাজানো হচ্ছে। উপন্যাসটি এরমধ্যে যারা পড়েছেন, তারা নিশ্চয়ই অবগত থাকবেন। ছবিটির প্রযোজক হিসেবে থাকছেন যৌথভাবে নায়ক-নির্মাতা দুজনেই।

পূর্ণিমা বললেন, ‘পাঁচ বছর পর ফিরছি। দুটি ছবিতেই নায়ক হিসেবে পাচ্ছি আমার বন্ধু ফেরদৌসকে। পরিচালকও একই। এটা বেশ মজার বিষয়। এখানে (গাঙচিল) আমি এনজিও কর্মীর চরিত্রে, ওখানে (জ্যাম) থাকছি নৃত্যশিল্পীর ভূমিকায়। মানে দুটো আলাদা মেজাজের সিনেমা ও চরিত্র নিয়ে শুরু করছি। আগের মতো এবারও সবার ভালোবাসা প্রত্যাশা করছি।’ অনুষ্ঠানে জানানো হয়, ‘গাঙচিল’ এ ফেরদৌস অভিনয় করবেন সাংবাদিকের চরিত্রে। শুটিং শুরু হবে ডিসেম্বর থেকে।

Check Also

আমি নায়িকা ছিলাম, নায়িকা হয়েই মরবো: নূতন

ঢাকাই সিনেমার সোনালি যুগের জনপ্রিয় অভিনেত্রী নূতন। দীর্ঘ ক্যারিয়ারে মূল থেকে পার্শ্ব চরিত্র; তিন শতাধিক …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *